প্রকাশের সময়: ১:৩১ পূর্বাহ্ণ | শুক্রবার, জুলাই ২৮, ২০১৭
Close [X]

উত্তরা পশ্চিম থানায় ধর্ষন মামলায়, যে পিরিতি-কেন ফাটল তোলপাড় !

মহসীন মাদবরঃ রাজধানীর উত্তরা পশ্চিম থানায় একটি ধর্ষন মামলা নিয়ে পারিবারিক বন্ধু-বান্ধব ও দীর্ঘদিনের ব্যবসায়ী পাটনার পরিবার চরম বিপাকে।উত্তরা পশ্চিম থানা ও তুরাগ থানা এলাকায় একই সাথে সুমন ও মামুন চলাচল বিভিন্ন কাজে একই সাথে মিলেমিশে কাজ করা গলায়=গলায় পিরিতি ও একই সাথে আড্ডা সেতু বন্ধনের মাঝে মহা ফাটল দেখা দিয়েছে

এ নিয়ে মামুন ও সুমনের মাঝে চরম বিরোধ সৃষ্টি পাল্টাপাল্টি হুমকি ও বিচার আচার এবং দুজনের মাঝে চরম মন মালিন্নতা, এ নিয়ে মামুন তার বউ বাদী হয়ে উত্তরা পশ্চিম থানায় মামলা করেছে এই মামলার খোজ খবর নিতে গেলে হুমকি দামকি দেয় এই মামলার বিষয় নিয়ে এলাকায় তুমুল আলোচনা সমলোচনা ঝড় বইছে।

উত্তরা পশ্চিম থানায় মামুনের বউ সুমাইয়া আক্তার বর্তমান বাসা ৩৩ রোড ১৩ সেক্টর ১১ বাদী হয়ে একটি মামলা করে আবু বকর সিদ্দিক সুমন এর বিরুদ্ধে এর বাদী, এই বিষয়ে গত কিছু দিন দরে উত্তরা বিভাগের বিভিন্ন পত্রিকার কর্মরত সংবাদকর্মীরা আসল ঘটনার কাহিনী জানতে চেষ্টা চালাচ্ছে এ নিয়ে ফেসবুকে আলোচনা সমলোচনা এবং স্টাটাস ফেসবুকে প্রচার করেন (উত্তরা পশ্চিম থানায় বানোয়াট ধর্ষন মামলা যায়যায় দিন সাংবাদিক সুমন পলাতক তোলপাড় আসল কাহিনী আসছে) এর ফেসবুক আইডির বিরুদ্ধে উত্তরা পশ্চিম থানায় একটি  এজাহার ও একটি সাধারণ ডারি করা হয় এর বাদী মামুন ও তার বউ জামাই বউ মিলে আরো বিভিন্ন ব্যাক্তিকে হুমকি দিচ্ছে, এই মামলার বিষয়ে অনুষন্ধান করতে গিয়ে উত্তরা বিভাগের বিভিন্ন পত্রিকার ও অনলাইন পত্রিকার সংবাদকর্মীরা হুমকির মুখে!।

উত্তরা পশ্চিম থানা এলাকার সাংবাদিকরা বলেন আব্দুল্লাহ আল মামুন ও আবু বকর সিদ্দিক সুমন উভয়ই সাংবাদিক তারা দু জন দীর্ঘ দিন দরে সাংবাদিকতা করেন উত্তরা পশ্চিম ও তুরাগে, একই প্রেস ক্লাবের দু জনেই নেতা ও আগে তারা দুজন পার্টনারে ব্যাবসা করছে, গত রোজার শেষ দিকে ঈদের আগ মুর্হুতে মামুনের বউ এবং শালির সাথে মামুনের বাসায়  একটি ঘটনা নিয়ে জামাই বউ মারামারি পিটাপিটি মামুনকে ছেড়ে চলে যাবার চেষ্টা করে বউ সুমাইয়া আক্তার, এই ঘটনা তার বাসায় এবং বন্ধু-বান্ধবদের মাঝে ছড়িয়ে পরে এই নিয়ে আবু বকর সিদ্দিক সুমন সহ বন্ধু মিলিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করে উভয়কে। আবু বকর সিদ্দিক সুমন বলেন মামুন পরিবার আমার পরিবার দীর্ঘদিন একই সাথে চলাফেরা ব্যবসা করা ও সাংবাদিকতা করা সহ বিভিন্ন কাজে এক সাথে চলাচল।

আমার বিরুদ্ধে যে ধর্ষন মামলা করেছে তা মিথ্যা বানোয়াট আমি এসব কাজে জড়িত নয়। মামুন ও তার বউ শালির বেপোরায়া জীবন যাপন ও চলাফেরা আমি বন্ধু হিসাবে দীর্ঘদিন পার্টনার ব্যবসাই এবং একই প্রেস ক্লাবের ও একই সাথে চলাফেরা ছিল হঠাৎ করে আমার বিরুদ্ধে কেন যেন মামলা হুমকি দিচ্ছে এবং মামলা করেছে , চাই না বন্ধুর মাঝে অন্যকেউ ফাটল ধরাক?
আরো বলেন আমার সাথে যাদের চলাফেরা ওঠাবসা নাই তারাও আমার বিরুদ্ধে করা মামলার আসামী হয়েছে আরো মামলা করবে যাকে খুশি মামলার আসামী দিবে….।
এই বিষয়ে উত্তরা পশ্চিম থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ আলী হোসেন খান এর সাথে গতকাল বিকালে যোগাযাগ করার চেষ্টা করা হয়। থানার পুলিশ কর্মকর্তারা বলেন সুমন মামুন দীর্ঘদিন দরে উত্তরা পশ্চিম থানা ও তুরাগ থানা এলাকায় চলাচল বসবাস করেন তাদের গলায়গলায় পিরিতীর ফাটল দরেছে একজন পলাতক অন্যজন মামলার বাদী সাথে বউকে বাদী করে মামলা করেছে
=== বিস্তারিত আসছে…. 71times