প্রকাশের সময়: ৮:৩২ অপরাহ্ণ | সোমবার, অক্টোবর ২, ২০১৭
Close [X]

মিস নাকি মিসেস ওয়ার্ল্ড বাংলাদেশ !

অবিশ্বাস! ‘মিস ওয়ার্ল্ড বাংলাদেশ ২০১৭’ প্রতিযোগিতার বিজয়ী ঘোষণা নিয়ে যে নাটকীয়তা ও গোলমাল বেঁধেছে, তাতে সবার মনেই এখন অবিশ্বাস! জান্নাতুল নাঈম এভ্রিল কি সত্যিই বিচারকদের রায়ে সেরা হয়েছেন, নাকি আয়োজকদের স্বজনপ্রীতিমূলক মনোভাবের সুবাদে তার মাথায় উঠেছে বিজয় মুকুট? এই প্রশ্নকে ঘিরে চলছে তুমুল বিতর্ক।

অনুসন্ধানে পাওয়া গেছে, প্রতিযোগিতায় বিচারকদের চূড়ান্ত নম্বরপত্রে অনেক পিছিয়ে ছিলেন জান্নাতুল নাঈম! বিচারকদের মধ্যে প্রকৌশলী সোনিয়া কবির বশিরের নম্বরপত্র অনুযায়ী জান্নাতুল নাঈম হয়েছেন দ্বিতীয়। আরেক বিচারক করপোরেট ব্যক্তিত্ব রুবাবা দৌলার নম্বরপত্রে দেখা গেছে, চট্টগ্রামের এই তরুণী পেয়েছেন সপ্তম স্থান। বিচারক প্যানেলে আরও ছিলেন ফ্যাশন ডিজাইনার বিবি রাসেল, জাদুশিল্পী জুয়েল আইচ, অভিনেত্রী শম্পা রেজা, আলোকচিত্রী চঞ্চল মাহমুদ। তবে তাদের নম্বরপত্র পাওয়া যায়নি।

অভিযোগ উঠেছে, বিচারকদের রায় বদলে দিয়ে ‘মিস ওয়ার্ল্ড বাংলাদেশ’ প্রতিযোগিতায় বিজয়ী ঘোষণা করা হয়েছে জান্নাতুল নাঈমকে। তবে বিচারকদের নম্বরপত্র বলছে, অনুষ্ঠানে প্রথমে বিজয়ী হিসেবে ঘোষিত জান্নাতুল সুমাইয়া হিমিও এগিয়ে ছিলেন না! বরং প্রথম রানারআপ জেসিয়া ইসলামের পক্ষে ছিল তাদের বেশিরভাগ ভোট। সব মিলিয়ে বিচারকরা বিস্মিত হয়েছেন বলে জানা গেছে।

বসুন্ধরা ইন্টারন্যাশনাল কনভেনশন সিটির নবরাত্রি মিলনায়তনে শুক্রবার (২৯ সেপ্টেম্বর) রাতে প্রতিযোগিতার গ্র্যান্ড ফিনালের শেষ পর্যায়ে ঝামেলা যে বেঁধেছে তা বোঝা যাচ্ছিল মঞ্চের একপাশে ডায়াসের সামনে উপস্থাপিকা শিনা চৌহান ও ‘মিস ওয়ার্ল্ড বাংলাদেশ ২০১৭’ প্রতিযোগিতার অন্যতম আয়োজক স্বপন চৌধুরীর মধ্যকার আলোচনা দেখে। দর্শক সারি থেকে পরিষ্কার বোঝা যাচ্ছিল, তাদের মধ্যে তর্ক হচ্ছে। তখন মঞ্চের মাঝে দাঁড়িয়ে থাকা স্বপন চৌধুরীর স্ত্রী নাসরিন চৌধুরী, প্রতিযোগিতার সহ-আয়োজক ওমিকন এন্টারটেইনমেন্টের চেয়ারম্যান মেহেদী হাসান, টাইটেল স্পন্সর লাভেলোর ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. একরামুল হক এসে যোগ দেন সেখানে। ডায়াসের ওপরে রাখা কাগজ-কলমকে ঘিরে সবার মধ্যে চলছিল আলোচনা। হঠাৎ উপস্থাপিকা শিনা ঘোষণা করেন— মিস ওয়ার্ল্ড বাংলাদেশ হয়েছেন জান্নাতুল সুমাইয়া হিমি। এর আগে প্রথম রানারআপ জান্নাতুল নাঈম এভ্রিল আর দ্বিতীয় রানারআপ হিসেবে জেসিয়া ইসলামের নাম শোনা যায় তার মুখে।

অনুষ্ঠান শেষে উপস্থাপিকা শিনা চৌহানের সঙ্গে কথা হয়। ভুলটা আসলে কার জানতে চাইলে ভারতীয় এই মডেল-অভিনেত্রী তখনই বলেছেন, ‘আমাকে কোনও শিট দেওয়া হয়নি। বিচারকদের রায় অনুযায়ী আমাকে যেসব নাম বলা হয়েছে সেটাই আমি ঘোষণা করেছি। আমার কোনও ভুল ছিল না। ভুল যদি হয়ে থাকে তাহলে তা আয়োজকদের দিক থেকে। আমি তালিকা অনুযায়ী প্রথম, দ্বিতীয় ও তৃতীয় ঘোষণা করেছি।’

শিনার কাছ থেকে মাইক্রোফোন নিয়ে অনুষ্ঠানে অন্তর শোবিজের চেয়ারম্যান বলেন, ‘একটা ভুল হয়ে গেছে। মিস ওয়ার্ল্ড বাংলাদেশ হয়েছেন জান্নাতুল নাঈম এভ্রিল। এরপর তিনি জানান, প্রথম রানারআপ জেসিয়া ইসলাম ও দ্বিতীয় রানারআপ হয়েছেন জান্নাতুল সুমাইয়া হিমি।’

মঞ্চে এভ্রিলকে মুকুট পরিয়ে দেন আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন ফ্যাশন ডিজাইনার বিবি রাসেল। তিনি রবিবার (১ অক্টোবর) বিকালে বলেছেন, ‘আমি যে তিনজনকে প্রথম, দ্বিতীয় ও তৃতীয় হিসেবে রায় দিয়েছি তারাই হয়েছে। জান্নাতুল নাঈম মেয়েটা লম্বা, স্মার্ট। আমি তো জানি বিশ্বসুন্দরী প্রতিযোগিতায় কী চাইবে, এই মেয়েটার মধ্যে ওইসব গুণ আছে। বাংলাদেশ থেকে যখন পাঠাবো, এমন একজনকেই তো পাঠাতে চাইবো আমরা।’

এভ্রিল ও হিমি দু’জনেরই নামের শুরুর অংশ ‘জান্নাতুল’ হওয়ায় ভুল হয়েছে বলে দাবি করেছেন অন্তর শোবিজের চেয়ারম্যান স্বপন চৌধুরী। শনিবার (৩০ সেপ্টেম্বর) গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে তিনি বলেন, ‘আসলে দুজনের নাম প্রায় একই হয়ে যাওয়ায় সমস্যাটা হয়েছে। লাইভ টেলিকাস্টের কারণে আমরা হুট করেই জানতে পারি, আমাদের হাতে মাত্র কয়েক মিনিট সময় রয়েছে। তখন তাড়াহুড়ো করতে হয়েছে। ভারতীয় উপস্থাপক শিনা চৌহান ঠিকঠাক সব চালিয়ে নিলেও মূল নাম উপস্থাপন করতে গিয়ে ভুল করে ফেলেছেন। এমন ভুল অস্কারের মতো আসরেও হয়। এরপরও আমরা এ ধরনের ভুলের জন্য ক্ষমাপ্রার্থী। এটাই চূড়ান্ত ফল, এখানে বিভ্রান্তির কোনো সুযোগ নেই।’ আয়োজকরা জানান, প্রতিযোগিতায় অংশ নেওয়ার জন্য প্রাথমিকভাবে প্রায় ২৫ হাজার আগ্রহী নাম নিবন্ধন করেন। তাদের মধ্য থেকে কয়েকটি ধাপে বাছাই করা হয় সেরা ১০ জনকে। তাদের মধ্যে এভ্রিল, জেসিকা ও হিমি ছাড়াও ছিলেন রুকাইয়া জাহান, জারা মিতু, সাদিয়া ইমান, তৌহিদা তাসনিম, মিফতাহুল জান্নাত, সঞ্চিতা দত্ত, ফারহানা জামান। শেষ পর্যন্ত বিতর্ককে সঙ্গী করেই চীনের সানাইয়া শহরে যাচ্ছেন জান্নাতুল নাঈম। আগামী ৩০ ডিসেম্বর বিশ্বের বিভিন্ন দেশের সুন্দরীদের সঙ্গে ৬৭তম মিস ওয়ার্ল্ড হওয়ার জন্য লড়বেন এই সুন্দরী।

এদিকে উপস্থাপকের মুখে নিজের নাম সেরা হিসেবে শুনে খুশির ফোয়ারা ছড়িয়েছিল জান্নাতুল সুমাইয়া হিমির মুখে। কিন্তু কয়েক মুহূর্ত। মিস ওয়ার্ল্ড বাংলাদেশ হওয়ার আনন্দটা তার নিমিষেই উড়ে গেলো! এ প্রসঙ্গে শনিবার ফেসবুকে তিনি লিখেছেন, ‘মানুষের জীবনে অনেক কিছুই ঘটে, কিন্তু জীবন থেমে থাকে না। অনেক বাধা পেরিয়ে প্রতিদিন কোটি কোটি মানুষ এগিয়ে যায়। আমিও তা চেষ্টা করবো। মুকুটটা না হয় নাই জিতলাম, মানুষের অনেক ভালোবাসা এবং শুভকামনা পেয়েছি। এতেই আমার বিজয়।’